নোয়াখালীতে আ’লীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে সাংবাদিক নিহতের ঘটনায় মামলা

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে আবদুল কাদের মির্জা ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান বাদল গ্রুপের মধ্যে রক্ষক্ষয়ী সংঘর্ষ ও গোলাগুলির সময় সাংবাদিক বুরহান উদ্দিন মুজাক্কিরকে গুলি করে হত্যার ঘটনায় মামলা করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) সকালে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের আসামি করে নিহতের বাবা মাওলানা নুরুল হুদা ওরফে নোয়াব আলী মাস্টার বাদী হয়ে কোম্পানীগঞ্জ থানায় এই মামলা করেন।

বিজ্ঞাপন

কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর জাহেদুল হক রনি মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের আসামি মামলা করা হয়েছে। এটিকে অধিক গুরুত্বের সঙ্গে দেখা হচ্ছে। ঘটনাস্থল থেকে বিভিন্ন আলামত সংগ্রহ করে সেই বিষয়ে ইতোমধ্যেই তদন্ত শুরু হয়েছে। আশা করছি দ্রুতই এই হত্যাকাণ্ডের রহস্য উন্মোচন হবে’।

নিহত বুরহান উদ্দিন মুজাক্কির উপজেলার চরফকিরা ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের মাওলনা নুরুল হুদা ওরফে নোয়াব আলী মাস্টারের ছেলে এবং তিনি দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার পত্রিকার কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা প্রতিনিধি ছিল।

এর আগে, শুক্রবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) বিকেল ৫টার দিকে উপজেলার চরফকিরা ইউনিয়নের চাপরাশিরহাট তরকারি বাজারের সামনে কাদের মির্জা ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান বাদল গ্রুপের মধ্যে রক্ষক্ষয়ী সংঘর্ষ ও গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। ওই সময় সাংবাদিক মুজাক্কির সংঘর্ষের সংবাদ সংগ্রহের সময় গলায় গুলিবিদ্ধ হন।

এ অবস্থায় প্রথমে তাকে উদ্ধার করে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে নিলে সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকায় পাঠানো হয়। পরে শুক্রবার রাত পৌনে ১টার দিকে তাকে ঢাকা মেডিকেলে ভর্তি করা হয়। সেখানকার আইসিইউতে তার মৃত্যু হয়।

-এনটি