খেজুর ও ঝর্ণাঘেরা হেজাজের দুই হাজার বছরের প্রাচীন গ্রাম

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: সৌদি আরবের পশ্চিমাঞ্চল হিজাজ ভূখণ্ডের হাজার হাজার বছরের প্রাচীন ঐতিহাসিক প্রবেশদ্বার হিসেবে বিবেচিত হয়। দেশের পশ্চিমে অবস্থিত প্রাচীন গ্রামগুলির ইতিহাস দুই হাজার বছরের পুরনো। এই অঞ্চলটিতে অনেক ঐতিহাসিক স্মৃতি এবং প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে।

পশ্চিম সৌদি আরবের এই অঞ্চলটি পবিত্র মক্কা এবং সিরিয়ার মধ্যে হাজীগণ এবং বাণিজ্য কাফেলার ঐতিহাসিক পথ হিসাবে ব্যবহৃত হত। এখানে ইসলামের প্রথম যুগের এবং তারও আগের সময়ের অনেক গল্প, ঘটনা, ধ্বংসাবশেষ এবং স্মৃতিচিহ্ন দর্শক ও শ্রোতাদের হাজার হাজার বছর পিছনে নিয়ে যায়।

বিজ্ঞাপন

মদীনা মুনাওয়ারা প্রদেশের ‘ইয়াম্বু-আননাখল’ পানির কূপগুলির জন্য বিখ্যাত। এখানে ৯৯ টি মিঠা পানির ঝর্ণা রয়েছে। তবে এই নামের একটি অংশ হলো আল-নাখল বা আল-নাখিল। অর্থাৎ এ গ্রামে খেজুর বাগান এবং পানির ঝর্ণা রয়েছে।

প্রাক-ইসলামিক যুগে ইয়ানবু আল-নখল লোহিত সাগরের তীরে একটি সুন্দর জায়গা হওয়ার পাশাপাশি এবং ঐতিহাসিকভাবে তাৎপর্যপূর্ণ। ১৪০০ বছর আগ পর্যন্ত সিরিয়া থেকে হিজাজ পর্যন্ত বাণিজ্য কাফেলা এই অঞ্চল দিয়ে যাতায়াত করত। ইসলামের আবির্ভাবের পর অঞ্চলটি হজযাত্রী ও বাণিজ্য কাফেলার যাতায়াতস্থলে পরিণত হয়।

সৌদি ফটোগ্রাফার ও ঐতিহাসিক স্থানের গবেষক আবদুল্লাহ আল ফারিস আল-আরবিয়াকে বলেছেন যে, ইয়াম্মুউন-নাখাল বাজারের শহর হিসাবেও পরিচিত। এর বিখ্যাত বাজারগুলির মধ্যে মঙ্গল বাজারটি অনেক পুরান। এখানে সুন্দর সরকারী অফিস, জামে মসজিদ, আলইয়াসিরা গ্রাম, আল-বাথানা, খিফ হুসেন এবং সুয়াইকা বাজার বিখ্যাত স্থান। তিনি বলেন, ইয়াম্বু আন-নাখিলের পুরাতন বাজারগুলির আল-জাবরিয়া বাজার এবং আস-সুওয়াইকা বাজার প্রাচীন যুগের গুরুত্বপূর্ণ বাণিজ্য কেন্দ্র ছিল।

একটি বাজারকে বলা হয় সোমবার বাজার, যেখানে সিরিয়া থেকে আনা পণ্য বিক্রি করা হয়। এখানে ব্যবসায়ীরা একে অপরের সাথে তাদের পণ্য বিনিময় করত। ইয়াম্বু আন-নাখালকে আরব উপদ্বীপের জলাশয় হিসাবে বিবেচনা করা হয়। এখানে পুরাতন কৃষি খামার, পানির ঝর্ণা এবং ঐতিহাসিক স্থানগুলি এখনও বিদ্যমান। এর মধ্যে ৯৯টি ঝর্ণার মধ্যে আইনুল জাবরিয়া, আইনে আজলান, আইনুল ফাজা, আইনে আলকাম বিখ্যাত। আর জাবাল রিজওয়া ও দিয়ারে ঝানিয়া পর্বতমালার মধ্যে সর্বাধিক বিখ্যাত এবং বড় পাহাড়।

আলআরাবিয়া থেকে অনুবাদ: সাইফ নূর

-এমএসআই