বাকস্বাধীনতার কথা বললেও ৫০০র’ও বেশি ভারতীয় একাউন্ট বন্ধ করল টুইটার

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: বাকস্বাধীনতায় জোর দেওয়ার কথা বলেছিল টুইটার। কিন্তু ভারতীয় কেন্দ্রিয় সরকারের হুঁশিয়ারিতে সিদ্ধান্ত পাল্টেছে টুইটার।

‘খালিস্থানপন্থী’দের সঙ্গে জড়িত অ্যাকাউন্টগুলো বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিল তারা/ তবে একই সঙ্গে তারা জানিয়ে দিয়েছে, শুধুমাত্র ভারতেই এই অ্যাকাউন্টগুলো বন্ধ হবে।

বিজ্ঞাপন

এই সামাজিক মাধ্যমের তরফে জানানো হয়েছে, সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে জড়িত ব্যক্তি, রাজনীতিক, সমাজকর্মীদের বিরুদ্ধে তারা কোনো পদক্ষেপ করবে না। তাতে ভারতের আইন অনুযায়ী বাকস্বাধীনতা লঙ্ঘন হবে বলেই মনে করছে তারা।

কৃষক আন্দোলনের সমর্থনে যখন একের পর এক টুইট হচ্ছিল, তখন অনেক অ্যাকাউন্ট বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছিল কেন্দ্রীয় ভারত সরকার। সরকারের বক্তব্য ছিল, পাকিস্তান এবং খালিস্থানপন্থীরা দেশের মানুষকে নানা রকম ভাবে উসকে দেওয়া চেষ্টা করছে। মানুষকে বিভ্রান্তি করার অভিযোগ তুলেছিল কেন্দ্র।

সরকারের নির্দেশ মতো বেশ কিছু অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে টুইটার। তবে সব অ্যাকাউন্ট বন্ধ না করায় সরকার তাদের সতর্ক করে। টুইটার থেকে ১,১৭৮টি খালিস্থান এবং পাকিস্তানপন্থীদের অ্যাকাউন্ট সরিয়ে দেওয়ার জন্য ফের নির্দেশ দেওয়া হয় কেন্দ্রে তরফে।

হুঁশিয়ারিও দেওয়া হয়, নির্দেশ না মানলে ভারতীয় তথ্যপ্রযুক্তি আইনের অধীনে টুইটারের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করা হবে, জরিমানা করা হবে আধিকারিকদের। কেন্দ্রের এই চাপের কাছে কিছুটা নতিস্বীকার করল টুইটার। সরকার যে ১,১৭৮টি অ্যাকাউন্ট বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছে, তার মধ্যে ৫৮৩টি বন্ধ করা হয়েছে বলে টুইটার সূত্রে খবর।

তবে টুইটার জানিয়েছে, বাকস্বাধীনতার পক্ষেই তারা সওয়াল করে যাবে। পাশাপাশি ভারতীয় আইন লঙ্ঘন না করে অ্যাকাউন্টগুলোকে কী ভাবে নিরাপদ রাখা যায় সেই চেষ্টাও চালিয়ে যাওয়া হবে বলে জানিয়েছে টুইটার। তাদের আরও বক্তব্য, হ্যাশট্যাগ সংক্রান্ত যে টুইটগুলো সমাজের ক্ষতি করতে পারে, সে গুলো যাতে ট্রেন্ড না করে সেই ব্যবস্থাও করা হচ্ছে।

-এসএন