মোদির সামনে ‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগান, জবাবে মমতার মুখে ‘জয় বাংলা’

 

প্রথমে পরিস্থিতি সামাল দিতে সঞ্চালক স্লোগানরত জনতাকে শান্ত থাকতে বলেন। তিনি বলেন, ‘‌আপনারা শান্ত হন। এই পূণ্যলগ্নে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কিছু কথা বলার সুযোগ দিন।’‌ কিন্তু তার কথা কানে নেননি তারা। মঞ্চের সামনেই স্লোগানের জোর আরও বাড়তে থাকে। এর পরই মাইক হাতে নেন মুখ্যমন্ত্রী।

বিজ্ঞাপন

মুখ্যমন্ত্রী হিন্দিতে বলেন, ‘‌আমার মনে হয়, সরকারি অনুষ্ঠানের একটা আলাদাই মর্যাদা, সম্ভ্রম থাকে। এটা সরকারি অনুষ্ঠান। কোনও রাজনৈতিক দলের সভা নয়। এটা সকল রাজনৈতিক দল ও সাধারণ মানুষের অনুষ্ঠান।’‌ এর পরই কৃতজ্ঞতা আর ক্ষোভ প্রকাশ করে মমতা বলেন, ‘কলকাতায় এই অনুষ্ঠান আয়োজন করায় আমি প্রধানমন্ত্রী, সংস্কৃতি মন্ত্রকের কাছে কৃতজ্ঞ। কিন্তু কাউকে আমন্ত্রণ করে তাকে অসম্মান করা শোভা দেয় না। তাই আমি এর প্রতিবাদে এই অনুষ্ঠানে আর কিছুই বলব না।’‌

শেষে ‘‌জয় হিন্দ’‌, ‘‌জয় বাংলা’‌ বলে নিজের আসনে গিয়ে বসেন ক্ষুব্ধ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। স্বাভাবিকভাবেই এই আকস্মিক ঘটনায় অস্বস্তিতে পড়েন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও অনুষ্ঠানে উপস্থিত অন্যরা। পরিস্তিতি ফের আয়ত্তে আনতে পরবর্তী উদ্বোধনী কর্মসূচির দিকে এগিয়ে যায় অনুষ্ঠান। মঞ্চে ডাক পড়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর।

ইজে