ইসরায়েলের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ ফিলিস্তিন গড়তে ১৫ বছর পর নির্বাচনের ঘোষণা

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: ইসরায়েলের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ ফিলিস্তিন গড়তে দেশটির প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস গত ১৫ বছরে এই প্রথমবার সংসদীয় এবং প্রেসিডেনসিয়াল নির্বাচন ঘোষণা করলেন।

আলজাজিরা জানিয়েছে, দীর্ঘদিনের অভ্যন্তরীণ বিরোধ মেটানোর জন্য এই নির্বাচন চলতি বছরের মাঝামাঝি অনুষ্ঠিত হবে।

বিজ্ঞাপন

আব্বাসের অফিস থেকে শুক্রবার একটি ডিক্রি জারি করে জানানো হয়েছে আইনসভা নির্বাচন হবে ২২ মে। এরপর প্রেসিডেনসিয়াল ভোট ৩১ জুলাই।

ফিলিস্তিনে সর্বশেষ সংসদীয় নির্বাচন হয় ২০০৬ সালে। সবাইকে অবাক করে হামাস সেই নির্বাচনে জিতে যায়। তবে ফাতাহর সঙ্গে ক্ষমতার দ্বন্দ্বে কেন্দ্রীয়ভাবে সরকার গঠন করতে না পেরে গাজা নিয়ন্ত্রণ নেয় ফিলিস্তিনি মুক্তি আন্দোলনের দলটি।

দুই পক্ষের ঐকমত্য: দেশটির প্রধান দুই পক্ষ ফাতাহ ও হামাস গত সেপ্টেম্বরে জানায় প্রায় পনেরো বছরের মধ্যে প্রথম কোনো নির্বাচন নিয়ে তারা ঐক্যে পৌঁছেছে।

এর ফলে পশ্চিম তীরের ফাতাহ ও ফিলিস্তিন সরকার (পিএ) প্রধান মাহমুদ আব্বাস এবং গাজার সরকার হামাসের প্রধান রাজনৈতিক নেতা ইসমাইল হানিয়ার মধ্যে একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।

তুরস্কে দুই পক্ষের মধ্যে এই সমঝোতা হয়। চুক্তিটি স্বাক্ষরিত হওয়ার ছয় মাসের মধ্যে ফিলিস্তিনে একটি একক নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে বলে তখন প্রতিশ্রুতি দেয়া হয়।

ইসরায়েলের সঙ্গে আমিরাত ও বাহরাইনের কূটনৈতিক সম্পর্ক শুরুর পর ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী দুই গোষ্ঠী হামাস ও ফাতাহ নিজেদের বিরোধ মিটিয়ে ফেলার তাগিদ অনুভব করে। কারণ, ইসরায়েলের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ ফিলিস্তিনের ছবি তুলে ধরা এখন জরুরি বলে হামাস ও ফাতাহ নেতারা মনে করছেন। তাই তাঁরা একজোট হয়েছেন।

-এনটি