ভারতের কৃষকদের ‘পাশে থাকবেন’ জাস্টিন ট্রুডো, প্রতিবাদ নয়াদিল্লির

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো বলেছেন, অধিকারের জন্য ভারতের কৃষকদের শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদে সব সময় পাশে থাকবে কানাডা।

গুরু নানকের ৫৫১তম জন্মদিন উপলক্ষে অনলাইনে কানাডার শিখ সম্প্রদায়ের একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে তিনি একথা বলেন। ভারতের নতুন কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে চলমান আন্দোলন নিয়ে উদ্বেগও প্রকাশ করেছেন ট্রুডো।

বিজ্ঞাপন

ট্রুডোই বিশ্বের প্রথম রাষ্ট্রপ্রধান যিনি ভারতের কৃষক বিক্ষোভ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করলেন।

এদিকে এঘটনায় তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে নয়াদিল্লী। মঙ্গলবার ভারতের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ট্রুডোর মন্তব্য ‘অসতর্ক’ এবং ‘অযৌক্তিক’।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব বলেছেন, ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয় নিয়ে ট্রুডোর ওই মন্তব্য অযৌক্তিক।

অনুরাগ আরও বলেন, ‘‘ভারতের কৃষকদের নিয়ে কানাডার নেতাদের অসতর্ক মন্তব্য করতে শোনা যাচ্ছে।’’ তাঁর মতে, কূটনৈতিক আলোচনাকে রাজনৈতিক উদ্দেশে ব্যবহার না করাই সর্বোত্তম।

ভারতের কৃষক আন্দোলন নিয়ে ট্রুডোর এই বক্তব্য ‘worldsikhorg’ নামের একটি ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডেলে প্রকাশ করা হয়েছে।

সেখানে ট্রুডো বলেন, ভারত থেকে কৃষকদের প্রতিবাদের যে সব খবর আসছে, তা স্বীকার না করলে আমার অনুশোচনা হবে। পরিস্থিতি যথেষ্ট উদ্বেগের। আমরা সবাই ওদের পরিবার ও বন্ধুদের জন্য চিন্তিত।’

তিনি বলেন, অধিকার রক্ষায় কৃষকদের শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদের জন্য সব সময় পাশে থাকবে কানাডা। আমরা আলোচনায় বিশ্বাস রাখি। সে জন্যই এই উদ্বেগের বিষয়টি ভারতীয় কর্তৃপক্ষকে সরাসরি জানাব।’

আরো পড়ুন: কৃষকদের চাপে দিশাহারা মোদি সরকার, আন্দোলনকারীদের বৈঠকের আহ্বান অমিত শাহের

অমিত শাহের আলোচনার প্রস্তাব ফিরিয়ে দিলেন ভারতের বিক্ষোভরত কৃষকরা

হাজার হাজার কৃষকের আন্দোলনে অবরুদ্ধ ভারতের রাজধানী দিল্লি

প্রসঙ্গত ভারতজুড়ে কৃষকদের বিক্ষোভ এবং বিরোধী দলগুলোর অনুরোধ উপেক্ষা করে গত ২৭ সেপ্টেম্বর কৃষি সংস্কার সংক্রান্ত বিতর্কিত তিনটি বিল পাস হয়।

এরপর থেকে কৃষি আইনটি বাতিলের দাবিতে ধারাবাহিকভাবে আন্দোলন করে আসছেন দেশটির কৃষকরা।

আইনটি প্রত্যাহারের দাবিতে সম্প্রতি মোদি সরকারের কৃষিনীতির বিরুদ্ধে আন্দোলনরত ভারতীয় কৃষকরা কার্যত দিল্লি ঘিরে ফেলেছেন।

রাজধানীতে ঢোকার যে পাঁচটি প্রধান সড়ক আছে, তার মধ্যে দুটি পুরোপুরি এবং একটি আংশিকভাবে বন্ধ করে দিতে হয়েছে। বাকি দুটি ঢোকার সড়কেও কৃষক জমায়েত হয়েছেন।

গত পাঁচদিন ধরে তারা দিল্লিতে আসার চেষ্টা করছেন। পুলিশের অবরোধ, লাঠি, কাঁদানে গ্যাস, জলকামান অগ্রাহ্য করে তারা দিল্লির সীমান্তে চলে এসেছেন। অনড় কৃষক নেতারাও। বলছেন, চার মাস টিকে থাকার রসদ নিয়েই আন্দোলনে নেমেছেন তারা।

সূত্র: আনন্দবাজার

এস এন 

বিজ্ঞাপন