ঢাকা-৫ ও নওগাঁ-৬ আসন : উপনির্বাচনে সর্বত্রই নৌকা

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: ঢাকা-৫ সংসদীয় আসনের উপনির্বাচনে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের প্রার্থী মো. কাজী মনিরুল ইসলাম ৪৫ হাজার ৬৪২ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। শনিবার রাতে রিটার্নিং কর্মকর্তা জি এম সাহাতাব উদ্দিন আনুষ্ঠানিকভাবে এই ফল ঘোষণা করেছেন।

তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির প্রার্থী সালাহউদ্দিন আহমেদ পেয়েছেন ২ হাজার ৯২৬ ভোট। এর আগে সকাল ৯টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হয়, চলে বিকাল ৫টা পর্যন্ত। ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। এই উপনির্বাচনে মোট ভোটার ৪ লাখ ৭১ হাজার ৭১ জন। ভোট দিয়েছেন ৪৯ হাজার ১৪১ জন। ভোট পড়েছে ১০ দশমিক ৪৩ শতাংশ।

বিজ্ঞাপন

এই আসনে প্রার্থী ছিলেন পাঁচজন। বাকি তিনজন প্রার্থীর মধ্যে জাতীয় পার্টির প্রার্থী মীর আব্দুস সবুর লাঙল প্রতীকে পেয়েছেন ৪১৩ ভোট। ন্যাশনাল পিপলস পার্টি (এনপিপি) প্রার্থী মো. আরিফুর রহমান আম প্রতীকে পেয়েছেন ১১১ ভোট। আর বাংলাদেশ কংগ্রেসের প্রার্থী আনছার রহমান শিকদার ডাব প্রতীকে পেয়েছেন ৪৯ ভোট।

এদিকে নওগাঁ-৬ আসনে জাতীয় সংসদের উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী আনোয়ার হোসেন হেলালকে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত ঘোষণা করা হয়েছে। শনিবার সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ করা হয়েছে। এ আসনে প্রথমবারের মতো ইভিএমে ভোট গ্রহণ করা হয়।

এদিকে ভোট চলাকালীন শনিবার বিকেল সাড়ে ৩টা নাগাদ বিএনপি’র প্রার্থী রেজাউল ইসলাম রেজু শেখ বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ তুলে ভোট বর্জনের ঘোষণা দেন।

 

তবে অনিয়মের অভিযোগ প্রত্যাখান করে আত্রাই উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ ও রাণীনগর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা জায়দা খাতুন বলেন, সকাল থেকেই অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোটাররা ভোট দিয়েছেন। কোথাও কোনো অনিয়ম বা বিশৃঙ্খলা হয়নি ও এমন কোনো লিখিত অভিযোগও পাইনি। এ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী আনোয়ার হোসেন হেলাল পেয়েছেন মোট এক লাখ পাঁচ হাজার পাঁচ শ’ ২১ ভোট এবং বিএনপির প্রার্থী রেজাউল ইসলাম রেজু পেয়েছেন চার হাজার ছয় শ’ পাঁচ ভোট। এছাড়া ন্যাশনাল পিপলস পার্টির খন্দকার ইন্তেখাব আলম রুবেল পেয়েছেন এক হাজার আট শ’ ১৬ ভোট।

এর মধ্যে রাণীনগর উপজেলায় নৌকা প্রতীক ৫৪ হাজার এক শ’ ২২, ধানের শীষ প্রতীক এক হাজার দুই শ’ সাত এবং আম প্রতীক পেয়েছে সাত শ’ ৫৮ ভোট।

এছাড়া আত্রাই উপজেলায় নৌকা প্রতীক পেয়েছেন ৫১ হাজার তিন শ’ ৯৯, ধানের শীষ প্রতীক তিন হাজার তিন শ’ ৯৮, ও আম প্রতীক পেয়েছেন এক হাজার ৫৮ ভোট।

নির্বাচন অফিসের তথ্য মতে, রাণীনগর ও আত্রাই উপজেলায় মোট ভোটার আছেন তিন লাখ ছয় হাজার সাত শ’ ২৫ জন। এর মধ্যে আত্রাই উপজেলায় এক লাখ ৫৭ হাজার এক শ’ ৩৮ ও রাণীনগর উপজেলায় এক লাখ ৪৯ হাজার পাঁচ শ’ ৮৭ জন। দুটি উপজেলার মোট ১০৪ টি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ করা হয়েছে।

রাণীনগর উপজেলায় ভোট গ্রহণ করা হয়েছে মোট ৪৯ টি কেন্দ্রে ও আত্রাই উপজেলায় ভোট গ্রহণ করা হয়েছে ৫৫টি কেন্দ্রে।

উল্লেখ্য, গত ২৭ জুলাই এই আসনের এমপি ইসরাফিল আলম মারা গেলে আসনটি শূন্য হয়। পরে নির্বাচন কমিশনের ঘোষিত তফসীল অনুযায়ী শনিবার ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়।

বিজ্ঞাপন