চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন ফেনীর বর্ষিয়ান আলেম মাওলানা আবুল কাশেম

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: ফেনীর বর্ষিয়ান আলেম, হেফাজতে ইসলামের জেলা আমীর ও জহিরিয়া মসজিদের খতিব মাওলানা আবুল কাশেম রোববার ভোরে রাজধানীর সেগুনবাগিচা এলাকার বাসায় শেষ নি:শ্বাস ত্যাগ করেন (ইন্নালিল্লাহে ওয়াইন্না ইলাইহে রাজিউন)। জেলার সর্বজন শ্রদ্ধেয় এ আলেমের মৃত্যুতে সর্বত্র শোকের ছায়া নেমে আসে। রোবাবর বাদ আছর ফেনীর ঐতিহাসিক মিজান ময়দানে মরহুমের জানাযায় হাজারো মুসল্লীর ঢল নামে। কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায় বিশাল এ ময়দান।

জানাযা পূর্ব সমাবেশে বক্তব্য রাখেন ফেনী পৌরসভার মেয়র হাজী আলাউদ্দিন, ওলামা বাজার মাদরাসার মোহতামিম মাওলানা নুরুল ইসলাম আবিদ, দৈনিক ফেনীর সময় সম্পাদক মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন, হেফাজতে ইসলামের জেলা উপদেষ্টা মুফতী আহমদ উল্যাহ, জেলা সেক্রেটারী সাইফুদ্দীন কাসেমী, সহ-সভাপতি মাওলানা ইউসুফ, সহ-সেক্রেটারী মুফতি ইলিয়াস ও মাওলানা আবুল কাশেম, জহিরিয়া মসজিদ পরিচালনা কমিটির সহ-সভাপতি আবুল কাশেম, হেফাজতে ইসলামের সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা ওমর ফারুক ও সহ-সাংগঠনিক মাওলানা জালাল উদ্দিন ফারুক, মরহুমের ছোট ভাই মাওলানা শহীদুল ইসলাম ও বড় ছেলে তৌহিদুল ইসলাম প্রমুখ। জানাযায় ইমামতি করেন মরহুমের মেঝ ছেলে মাওলানা কামরুল ইসলাম।

জানাযা শেষে বাদ মাগরিব ফেনী সদর উপজেলার ধর্মপুর ইউনিয়নে পদুয়া গ্রামের ভূঁইয়া বাড়ির দরজায় নিজ প্রতিষ্ঠিত পদুয়া কাসেমুল উলুম মাদরাসার পাশে তিনি চিরনিদ্রায় শায়িত হন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৬ বছর। তিনি স্ত্রী, ৪ ছেলে, ৪ মেয়ে, নাতি-নাতনী সহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন।

বিজ্ঞাপন

মাওলানা আবুল কাশেম জীবদ্দশায় ফেনী পৌর ইমাম কমিটির সভাপতি এবং দীর্ঘদিন ফেনী কোর্ট মসজিদের খতিব ছিলেন। এছাড়াও তিনি বিভিন্ন দ্বীনি প্রতিষ্ঠানের সাথে জড়িত ছিলেন।

বিজ্ঞাপন