গোবরের তৈরি চিপ মোবাইলের ক্ষতিকর রশ্মি রোধ করবে, দাবি ভারতের আরকেএ চেয়ারম্যানের!

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: ভারতে হিন্দু সমাজে গরুর গোবরের ‘নানামাত্রিক সেবন-আয়োজনের’ মধ্যেই এবার এর ব্যবহার নিয়ে এক অভূতপূর্ব উদ্ভট মন্তব্য করেছেন দেশটির রাষ্ট্রীয় কামধেনু আয়োগের চেয়ারম্যান বল্লভভাই কাথিরিয়া। তিনি দাবি করেছেন, রোগ প্রতিরোধে গোবরই হল রক্ষাকবচ। তার অভিনব দাবি, গোবর দিয়ে তৈরি বিশেষ চিপের ক্ষতিকর বিকিরণ-রোধী ক্ষমতা বৈজ্ঞানিক ভাবে প্রমাণিত।

তিনি বলেন,‘সমস্ত দুরারোগ্য ব্যাধির হাত থেকে বাঁচতে ভরসা গোবর। কেননা গোবর বিকিরণ–রোধী।’

বিজ্ঞাপন

সোমবার এই বিশেষ ‘রক্ষাকবচ’ প্রকাশের অনুষ্ঠানে এমন দাবি করেছেন রাষ্ট্রীয় কামধেনু আয়োগের (RKA) চেয়ারম্যান বল্লভভাই কাথিরিয়া।

বল্লভ ভাই ক্যাথিরিয়ার দাবি, গোবর তথা ঘুঁটে থেকে নির্মিত এই চিপ মোবাইলের ভিতরে রাখলে তা বিকিরণের মাত্রা কমিয়ে দেবে। ফলে রোগের হাত থেকে রক্ষা মিলবে। দেশব্যাপী ‘কামধেনু দীপাবলী অভিযান’–এর সূচনা করার পর তিনি এই ঘোষণা করেছেন। প্রসঙ্গত, সারা ভারতে গোবরজাত পণ্যের প্রচার করাই এই অভিযানের লক্ষ্য।

বল্লভভাই কাঠিরিয়া বলেন, ‘গোবর সকলকে রক্ষা করবে। কারণ তা বিকিরণ–রোধী। এটা বিজ্ঞানসম্মত। এই ‘রেডিয়েশন চিপ’, মোবাইল ফোনে ব্যবহার করা হলে তা বিকিরণকে রোধ করবে। এটা বিভিন্ন রোগের হাত থেকে আমাদের বাঁচাবে। আপনারা অসুখের হাত থেকে বাঁচতে চাইলে এটা ব্যবহার করে দেখতে পারেন।’
এই অভিনব চিপের নাম ‘গৌসত্ব কবচ’।

২০১৯ সালে স্থাপিত হয় রাষ্ট্রীয় কামধেনু আয়োগ। গরুর সংরক্ষণ, সুরক্ষাই আয়োগের লক্ষ্য। এটি মৎস্য, পশুপালন ও গবাদি পশু মন্ত্রণালয়ের অন্তর্গত। উৎসবের মরশুমে গোবরজাত পণ্যের ব্যবহারে সকলকে উৎসাহিত করার লক্ষ্যেই তারা শুরু করেছে প্রচার অভিযান।

খবর আজকাল, এই সময়