কাতারে তুরস্কের সামরিক উপস্থিতির সমালোচনায় আমিরাত

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: সংযুক্ত আরব আমিরাত কাতারে তুরস্কের সামরিক উপস্থিতির সমালোচনা করে  বলেছে, তুর্কি ঘাঁটির জন্য মধ্যপ্রাচ্য অঞ্চলে অস্থিতিশীলতা সৃষ্টি হয়েছে।

আরব আমিরাতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আনোয়ার গারগাশ গতকাল (শনিবার) তার টুইটার একাউন্টে দেয়া এক পোস্টে এ কথা বলেছেন।

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন পারস্য উপসাগরীয় অঞ্চলে তুরস্কের সামরিক উপস্থিতি অনেকটা জরুরি অবস্থা জারির মতো। তুরস্ক মেরুকরণ জোরদার করেছে এবং এ অঞ্চলের দেশগুলোর স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব ও জনগণের স্বার্থকে বিবেচনায় নেয় নি বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

২০১৭ সালের জুন মাসে সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত, মিশর এবং বাহরাইন কাতারের বিরুদ্ধে সর্বাত্মক অবরোধ আরোপ করার পর তুরস্ক কাতারের অন্যতম প্রধান সমর্থক এ পরিণত হয়েছে। সেই থেকে তুরস্ক কাতারকে সবদিক দিয়ে সমর্থন দিয়ে আসছে এবং দেশটিতে সেনা মোতায়েন করে রেখেছে।

এদিকে, সৌদি আরবের ব্যবসায়ী প্রিন্স আব্দুর রহমান বিন মুস’আদ তুরস্ক থেকে যেকোন ধরনের পণ্য আমদানি বর্জন করার আহ্বান জানিয়েছেন। কাতারে মোতায়েন করা তুর্কি সেনারা পারস্য উপসাগরীয় অঞ্চলে স্থিতিশীলতা প্রতিষ্ঠায় সাহায্য করছে বলে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোগান মন্তব্য করার পর সৌদি প্রিন্স তুরস্কের পণ্য বর্জনের আহ্বান জানালেন। পার্সটুডে