অবশেষে বিজেপি নেতার একাউন্ট বন্ধ করল ফেসবুক

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: নিজের ফেসবুক একাউন্টে রোহিঙ্গা ও মুসলিমবিদ্বেষী সাম্প্রদায়িক উসকানিমূলক ঘৃণ্য বক্তব্য ছড়িয়েছিলেন এই বিজেপি নেতা। কিন্তু তারপরও নির্বিকার ছিল ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। ব্যবসার ক্ষতির আশংকায় তারা নিজেদেরই নীতিমালা লংঘন করেছেন বলে অভিযোগ উঠে। গত মাসে মার্কিন সংবাদপত্র ওয়াল স্ট্রিট জার্নালে এ সংক্রান্ত তথ্য বের হলে চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয় ভারত ও ভারতের বাইরে। চাপের মুখেপড়ে স্বয়ং ফেসবুক কর্তৃপক্ষও।

দেশ-বিদেশের বহু বিতর্কের পর অবশেষে ভারতের ক্ষমতাসীন বিজেপি দলের এই নেতা টি. রাজা সিংয়ের ফেসবুক পেজ এবং ইন্সটাগ্রাম একাউন্ট নিষিদ্ধ করেছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ।

বিজ্ঞাপন

তিনি ভারতের তেলেঙ্গানা রাজ্যের বিধায়ক।

বৃহস্পতিবার ফেসবুকের একজন মুখপাত্র এক ই-মেইল বিবৃতিতে বলেন, ‘আমরা রাজা সিংকে আমাদের নীতিমালা ভঙ্গের কারণে ফেসবুকে নিষিদ্ধ করেছি। আমাদের নীতিমালায় সহিংস ও ঘৃণ্য বক্তব্য প্রচার নিষিদ্ধ।’

ভারতের সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, বিজেপি নেতা টি রাজা সিংয়ের বক্তব্য ফেসবুকের নীতিমালা ভঙ্গ করেছে।
প্রথমে ফেসবুক তাকে ছাড় দিয়েছিল বলে অভিযোগ উঠেছিল। তবে বর্তমানে ফেসবুক থেকে তার পেজ সরিয়ে ফেলা হয়েছে।

এদিকে ফেসবুকে তার কোনো পেজ নেই বলে টুইটারে দাবি করেছেন এই বিজেপি নেতা।

এক ভিডিওবার্তায় রাজা সিং দাবি বলেন, ‘আমি জেনেছি অনেক ফেসবুক পেজে আমার নাম ব্যবহার করা হচ্ছে। আমি পরিষ্কার করে বলতে চাই, আমার কোনো অফিশিয়াল পেজ নেই। তাই কোনো পোস্টের জন্য আমি দায়ী নাই। আমি ফেসবুকে সাম্প্রদায়িক সহিংসতা ছড়াইনি। ২০১৮ সালেই আমার অফিশিয়াল ফেসবুক পেজ হ্যাক হয় এবং বন্ধ হয়ে যায়।

গত মাসে মার্কিন সংবাদপত্র ওয়াল স্ট্রিট জার্নালে প্রকাশিত খবরে ফেসবুকের বিরুদ্ধে সরাসরি বিজেপির প্রতি পক্ষপাতদুষ্ট আচরণের অভিযোগ তোলা হয়েছিল।

ওয়াল স্ট্রিট জার্নালে প্রকাশ, বিজেপির নেতা টি রাজা সিং ফেসবুক পেজে রোহিঙ্গা ও মুসলমানদের নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করেছিলেন।

আরো পড়ুন: বিবিসির রিপোর্ট: ব্যবসার ক্ষতির ভয়ে ভারতে মুসলিম বিদ্বেষ ছড়িয়েছে ফেসবুক!

বিজেপি নেতার মুসলিম বিদ্বেষী পোস্ট: ভারতের ফেসবুক প্রতিনিধিকে সংসদীয় কমিটিতে তলব

ফেসবুকের পর এবার হোয়াটসঅ্যাপও নিয়ন্ত্রণে নিল বিজেপি, অভিযোগ রাহুলের

বিজ্ঞাপন