‘ভবিষ্যতে হয়তোবা তারা আল-আকসাকেও জাদুঘরে রূপান্তরের উদ্ভট দাবি জানাবে’

ইসলাম টাইমস ডেস্ক:  আয়া সোফিয়াকে মসজিদে প্রত্যাবর্তনের ঘোষণার পর এনিয়ে সমালোচকদের জবাবে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়েব এরদোগান বলেছেন, ‘তারা হয়তোবা পরবর্তীকালে আল-আকসাকেও জাদুঘরে রূপান্তরিত করার মতো বিস্ময়কর দাবি জানাতে পারে। আয়া সোফিয়াকে জাদুঘর হিসাবে বজায় রাখার উদ্ভট দাবিকারিদের থেকে এমন ( আল-আকসাকেও যাদুঘরে রূপান্তরিত করা) কিছু আমাদের অবাক করবে না।

সমালোচকদের জবাবে এরদোগান আরো বলেন, আয়া সোফিয়াকে জাদুঘর হিসাবে বজায় রাখার এ ইচ্ছা তাদের (সমালোচকদের) উদ্ভট যুক্তির ফলাফল।

বিজ্ঞাপন

আরো পড়ুন: ১৯৩৪ সনে আয়া সোফিয়াকে জাদুঘরে পরিণত করা অবৈধ ছিল: তুর্কী আদালত

তুরস্কের সরকারী সংবাদ সংস্থা এরদোগানের বরাতে জানিয়েছে, এরদোগান বলেন, এটি নিশ্চিত যে এই একই মানসিকতার (যা আয়া সোফিয়াকে মসজিদে প্রত্যাবর্তনের ইস্যুটির বিরোধিতা করে) কারণে হয়তোবা কখনো তারা (সমালোচকরা) সুলতান আহমেদ মসজিদ (নীল মসজিদ)- কে ইস্তাম্বুলের জাদুঘরে রূপান্তরের মতো প্রস্তাব দিতে পারে।

আরো পড়ুন: আয়া সোফিয়া মসজিদে প্রত্যাবর্তন: পশ্চিমা সংস্থা-শাসকদের নিন্দা শুরু

ছবি; সিএএন

তুরস্কের সরকারী সংবাদ সংস্থার বরাতে সিএনএন জানিয়েছে, এরদোগান বলেন, অতীতে এই মানসিকতা সুলতান আহমেদ মসজিদকে চিত্র প্রদর্শনীর স্থান, এবং আয়া সোফিয়াকে একটি জাজ ক্লাব হিসাবে ব্যবহারের মতো প্রস্তাব দিয়েছিল। এমনকি তারা এধরনের কাজ কিছুটা চালিয়েও গেছে। তিনি আরও বলেন, সব সময়ের মত এই সব মানসিকতা তথাকথিত আধুনিকতা ছাড়া কিছুই নয়।

আরো পড়ুন: আয়া সোফিয়া নিয়ে আদালতের রায়ে আপত্তি তোলা তুর্কি সার্বভৌমত্বের ওপর আক্রমণ: এরদোগান

এরদোগান বলেন, আমরা আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করি, তিনি যেন আমাদের দেশ ও মনুষ্যত্বকে এধরনের মানসিকতা থেকে রক্ষা করেন। তিনি বলেন, যাদের সঠিক মূল্যবোধের সাথে বৈরিতা আছে, তাদেরকে এ জাতির সন্তানেরা কখনো মর্যাদার আসন দেবে না।

আরো পড়ুন: আয়া সোফিয়া মসজিদ নিয়ে শুরু হল পশ্চিমাদের গা জ্বলুনি

সিএনএন আরবি অবলম্বনে: আব্দুর রহমান মুজিব

বিজ্ঞাপন