আপনি কি মা-বাবাকে সময় দেন?

468
ড. শায়খ মুহাম্মদ আরেফী ।।

আপনি কি আপনার বাবা মাকে সময় দেন? আমাদের মধ্য অনেক লোক এমন আছে যারা তাদের বাবা মাকে সময় দেয় না।  স্কুল কলেজ অথবা চাকুরিতে সময় কাটিয়ে মা বাবাকে আর সময় দেয় না।   তারা চায়ের মজলিসে কিংবা খাবারের দস্তরখানেও মা বাবার সাথে বসে না। যদি বা কখনো বা বসে তাহলে হাতে কোনো মোবাইল অথবা পত্রিকা অথবা অন্য কিছু থাকে।  মা বাবার সাথে এমন ভাবে বসে যেন তিনি অফিসের বস।

কিন্তু মনে রাখবেন, মা বাবার সাথে কিছু সময় কাটালে তাদের মনে যে আনন্দ হয় তা আপনি কল্পনা করতে পারবেন না।  আল্লাহ তায়ালা ‍কুরআন মাজিদে সন্তানের উপস্থিতি এবং কাছে থাকাকে নেয়ামত হিসাবে উল্লেখ করেছেন।

হযরত হাসান বসরি রহ এর  আম্মা যখন ইন্তিকাল করেছেন, তখন তিনি কাঁদতে লাগলেন। লোকজন জিজ্ঞেস করল, হে আবু সাইদ আপনি কাঁদছেন  অথচ আপনি কত বড় মানুষ! আপনি কত বড় আলেম! কত বড় বুজুর্গ ! তিনি বললেন, হা, আমি কাঁদছি।  এত দিন আমার জান্নাতে যাওয়ার দুটি দরজা খোলা ছিল। আজ একটা দরজা বন্ধ হয়ে গেল।

অনেকে বলে, মা বাবার সাথে কী নিয়ে কথা বলব খুজে পাইনা। আমি বলি, আপনি যে পত্রিকা খুলে রেখেছেন সেখান থেকে কিছু আলোচনা করুন। সামাজিক মাধ্যম খোলা থাকলে সেখান থেকে বলুন। কোথায় কী ঘটল, কে কী লেখল, কে কী উত্তর দিল সেটাই মা-বাবার সাথে আলোচনা করুন। এভাবে কিছু কিছু করে মা-বাবার সাথে খোলামেলা হওয়ার চেষ্টা করুন।

এমন যেন না হয়, আপনি এমনভাবে বসে আছেন যে কথা বলার কিছু খুজে পাচ্ছেন না। কোনো দ্বীনী কিতাব থেকে কোনো বিষয় পড়ে শোনান। কোনো ঘটনা কোনো শিক্ষণীয় গল্প এগুলো শোনান। তাফসীর পড়ে শোনান। রাসূলের জীবনী থেকে পড়ে শোনান। বিশ্বাস করুন, আপনার এ আলোচনা  আপনার এ কথা বলা মা-বাবার জন্যে অনেক আনন্দদায়ক, এবং অনেক প্রশান্তির কারণ।

অনুলিখন : এনাম হাসান জুনাইদ