দিল্লি নিয়ে কথা নেই, ‘পাকিস্তান’ শব্দ বলায় শিক্ষার্থীদের টুথপেস্টে মুখ ধুতে বললেন জাফর ইকবাল

3677

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: ভারতের দিল্লিতে চারদিন ধরে চলা মুসলিম হত্যাকাণ্ড নিয়ে যখন দুনিয়াজুড়ে তোলপাড়, তখন আলোচিত বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল উল্টো তার করা একটি প্রশ্নের উত্তরে ‘পাকিস্তান’ শব্দটি উচ্চারণ করায় কোমলমতি ছাত্রদের বাসায় গিয়ে টুথপেস্ট দিয়ে মুখ ধুতে বললেন। আজ (শুক্রবার) সকালে ঘটলো এ ঘটনা।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে ‘মুক্তির উৎসব’ শীর্ষক একটি কর্মসূচি চলছিল। এতে মুহম্মদ জাফর ইকবাল ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে প্রশ্নোত্তরের ভঙ্গিতে নানা কথা বলেন।

মঞ্চে উঠেই মুহম্মদ জাফর ইকবাল শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে প্রশ্ন করলেন, ‘তোমরা কেমন আছো?’ ক্ষুদে শিক্ষার্থীরা উত্তর দিল, ‘ভালো আছি।’ এরপর তাদের বেশ কয়েকটি প্রশ্ন করলেন তিনি। একটি প্রশ্নের উত্তরে তারা ‘পাকিস্তান’ শব্দটি উচ্চারণ করলে জাফর ইকবাল বললেন, ‘আমি এই দেশটার নামও মুখে নিতে চাই না। তোমরা সবাই বাসায় গিয়ে টুথপেস্ট দিয়ে ভালো করে মুখ ধুয়ে নেবে, যেহেতু এই দেশের নামটা মুখে নিয়েছো। ঠিক আছে?’

মঞ্চে বক্তব্য দিতে গিয়ে জাফর ইকবাল বলেন, ‘আমি একজন মাস্টার, একজন টিচার। টিচাররা কী করেন? ছেলেমেয়েদের পড়ান। আমি পড়াই আর ছেলেমেয়েদের পরীক্ষা নিই। আমি তোমাদের একটা পরীক্ষা নিই, দেখি তোমরা কে কে পাস করতে পারো।’

এরপর একে একে ছুড়ে দেন বেশ কটি প্রশ্ন। ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘কোয়েশ্চেন নাম্বার ওয়ান, আমাদের দেশের নাম কী?’ ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের উত্তর- ‘বাংলাদেশ’। জাফর ইকবালের মন্তব্য, ‘পাস, সবাই পাস করেছো। অলরাইট। এখন যদি আমি তোমাদের বলি যে একটা মানুষের নাম বল, যে মানুষটার জন্ম না হলে আমাদের বাংলাদেশ হতো না।’ উত্তর এল, ‘জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।’ এবারও জাফর ইকবালের মন্তব্য, ‘পাস, সবাই পাস। বঙ্গবন্ধুর যদি জন্ম না হতো, তাহলে আমাদের বাংলাদেশ হতো না। মনে রেখো, তিনি সবাইকে একত্র করেছিলেন, সবাইকে বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখিয়েছিলেন।’ এরপর তিনি বলেন, ‘এবার বলো, আমাদের দেশ কোন দেশের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করেছিল?’ ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের উত্তর দিল, ‘পাকিস্তান।’

এ উত্তরটি শোনার পরই জাফর ইকবাল বললেন, ‘আমি এই দেশটার নামও মুখে নিতে চাই না। তোমরা সবাই বাসায় গিয়ে টুথপেস্ট দিয়ে ভালো করে মুখ ধুয়ে নেবে, যেহেতু এই দেশের নামটা মুখে নিয়েছো। ঠিক আছে?’

পুরো আলোচনায় দিল্লিতে চলা জঙ্গি হিন্দুদের সাম্প্রদায়িক সংঘাত ও মুসলিম হত্যকাণ্ড নিয়ে একটি কথাও বললেন না জাফর ইকবাল।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে বিশাল প্যান্ডেলের নিচে অনুষ্ঠিত এ উৎসবে রাজধানীর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর কয়েক হাজার শিক্ষার্থী অংশ নেয়। তারা শপথ নেয় উদার-অসাম্প্রদায়িক ও মানবিক সমাজ গড়ে তোলার, সন্ত্রাস-মাদক-জঙ্গিবাদ নির্মূলের। শপথ পাঠ করান মুক্তিযুদ্ধের ১নম্বর সেক্টরের কমান্ডার মেজর (অব.) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম।