বান্দরবনে দুর্বৃত্তদের গুলিতে নিহত আ.লীগ নেতা

28

ইসলাম টাইমস ডেস্ক : বান্দরবান সদর উপজেলার জামছড়ি মুখপাড়া এলাকায় দুর্বৃত্তদের গুলিতে ৭নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি বাচনু মারমা (৬০) নিহত এবং আরও পাঁচজন গুলিবিদ্ধ হয়েছে। এসময় প্রত্যক্ষদর্শী বাতখই মারমা (৬৩) আতঙ্কিত হয়ে ‘হৃদরোগে’ আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন।

শনিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যা ৭টায় জামছড়ি মুখপাড়ার একটি চায়ের দোকানে আড্ডারত অবস্থায় তাদের ওপর গুলি করা হয়। সদর উপজেলার রাজবিলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ক্য অং প্রু বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আহতরা হলেন- মংক্য চিং (২৫), ক্য প্রু মং (৪০), আদাসে (৩২), লা মং সিং (৩৫), সাবেক মেম্বার উ চ থোয়া (৬০)। তারা সবাই একই এলাকার বাসিন্দা।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানিয়েছেন, সন্ধ্যায় বিভিন্ন জায়গা থেকে এসে চায়ের দোকানে আড্ডা দিচ্ছিলেন তারা। এ সময় অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী গ্রুপের কয়েকটি দল এসে তাদের ওপর এলোপাতাড়ি গুলি চালিয়ে পালিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলে আওয়ামী লীগ নেতার মৃত্যু হয়।

এদিকে ঘটনাস্থল থেকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় আহতদের উদ্ধার করে বান্দরবান সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাদের মধ্যে একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। নিহতের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় ওই এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে। তবে এ ঘটনায় কাউকে আটক করতে পারেনি পুলিশ।

বান্দরবার সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা প্রত্যুষ পাল ত্রিপুরা বলেন, একজন গুলিতে নিহত হয়েছেন। আরেকজনের মৃত্যু হয়েছে ‘হৃদরোগে’। দু’জনকেই মৃত অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়েছে।

বান্দরবান সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহিদুল ইসলাম বলেন, কে বা কারা এ হামলা চালিয়েছে তাৎক্ষণিকভাবে বলা যাচ্ছে না। লাশ উদ্ধার করে জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

প্রসঙ্গত, এর আগে গত বছরের ২২ জুলাই তারাছা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মং মং থোয়াইকে ব্রাশফায়ার করে হত্যা করে সন্ত্রাসীরা।