বাংলাদেশি আখ্যা দিয়ে ভারতে মুসলিম বস্তি গুঁড়িয়ে দিলো পুলিশ

56

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: ভারতের ব্যাঙ্গালোরে পুলিশ ও পৌরসভা কর্তৃপক্ষ মিলে ‘অবৈধ বাংলাদেশিদের বস্তি’ সন্দেহে প্রায় দুইশ বাড়িঘর গুঁড়িয়ে দিয়েছে। এ খবর দিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভি।

তবে অ্যাক্টিভিস্টরা বলছেন, পুলিশ এই উচ্ছেদ অভিযানে যাদের বাড়ি-ঘর ভেঙে দিয়েছে তারা সবাই ভারতের নাগরিক এবং তাদের কাছে দেশটির বৈধ পরিচয়পত্রও আছে।

গণমাধ্যম এনডিটিভি জানায়, সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও পোস্ট করেছিলেন রাজ্যের বিধায়ক ও ক্ষমতাসীন বিজেপি নেতা অরবিন্দ লিম্বাভালি।

তিনি দাবি করেন, শহরটির আগ্রাহারা এলাকায় অবৈধভাবে একটি বস্তি গড়ে তুলেছে বাংলাদেশিরা। মূলত এর পরই সেই বস্তিটি ভেঙে ফেলে বেঙ্গালুরু মহানগর পুলিশ।

মঙ্গলবার (২১ জানুয়ারি) পৌরসভার পক্ষ থেকে বিবৃতির মাধ্যমে জানানো হয়, অবৈধ ওই বস্তি গড়ে তোলার কারণে এলাকায় শান্তি বিঘ্নিত হচ্ছে। বিষয়টি নিয়ে একাধিক অভিযোগ আসছিল। মূলত সেই অভিযোগের প্রেক্ষিতে বস্তিটির শতাধিক ঝুপড়ি ঘর ভেঙে ফেলা হয়।

স্থানীয়দের মতে, এবার যাদের ঘর ভাঙা হয়েছে তাদের অধিকাংশই ত্রিপুরা কিংবা আসামের নাগরিক। মুন্নির নামে এক বাসিন্দা বলেন, আগাম নোটিশ ছাড়াই বস্তিতে এসে বুলডোজার দিয়ে ঘর ভাঙে পুলিশ। আমরা ঘর থেকে কোনো মালপত্র বের করতে পারিনি। তারা আমাদের বাংলাদেশি অনুপ্রবেশকারী ভেবে এমনটা করেছে। যদিও ওরা আমাদের কোনো নথিপত্রই দেখেনি।

মুহাম্মদ আসাদ-উল নামের এক ব্যাক্তি বলেন, আমরা এখানে সিকিউরিটি গার্ড ও ঝাড়ুদারের কাজ করি। পুলিশ যদি মনে করে আমরা অবৈধ নাগরিক, তাহলে তাদের আগে উচিত আমাদের নথিপত্র দেখা।

অপরদিকে গৃহহীনদের পক্ষে আদালতে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বিনয় শ্রীনিবাস নামে স্থানীয় এক আইনজীবী। তিনি বলেন, বস্তিটি যেভাবে ভাঙা হয়েছে তা সম্পূর্ণভাবে বেআইনি। কেননা তাদের কাছে এই বস্তি ভাঙার কোনো নির্দেশনাই ছিল না।