রোহিঙ্গা গণহত্যার দায়ে জাতিসংঘকেও জবাবদিহি করতে হবে : টিআইবি

36

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: মিয়ানমারের রোহিঙ্গা মুসলিমদের জাতিগত নিধনযজ্ঞের প্রস্তুতির বিষয়ে জেনেও প্রতিরোধের ব্যবস্থা না নেওয়ার দায়ে জাতিসংঘকেও জবাবদিহি করতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন টিআইবি’র নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান।

আজ বৃহস্পতিবার জার্মানি ভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ডিডব্লিউকে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে টিআইবি পরিচালক এ মন্তব্য করেন।

এর আগে বৃহস্পতিবার সকালে ‘মিয়ানমার থেকে নাগরিকদের (রোহিঙ্গা) বলপূর্বক বিতাড়ন, বাংলাদেশে অবস্থান, সুশাসনের চ্যালেঞ্জ ও উত্তরনের উপায়’ শীর্ষক এক গবেষণা প্রতিবেদন প্রকাশ করে টিআইবি৷

ঢাকায় টিআইবি কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সেই অনুষ্ঠানে ড. ইফতেখারুজ্জামান বলেন, ‘‘এই ধরনের সংকটে জাতিসংঘের স্বার্থ আছে৷ প্রমান আছে জাতিসংঘ রোহিঙ্গাসংকাট প্রতিরোধে তার ভূমিকা পালন করেনি৷” পরে এর ব্যাখ্যায় ডয়চে ভেলেকে তিনি বলেন, ‘‘মিয়ানমারে যে জাতিগত নিধন হচ্ছে এটা  একদিনের বিষয় নয়৷ আর এই জাতিগত নিধনের তথ্য যে জাতিসংঘের কাছে ছিল না, তা কিন্তু বিশ্বাসযোগ্য নয়৷ এবং এটা এখন জানা যাচ্ছে যে, জাতিসংঘের কাছে তথ্য ছিল৷ মিয়ানমারের সামরিক জান্তারা যে জাতিগত নিধন শুরু করবে তার সুনির্দিষ্ট তথ্যও জাতিসংঘের কাছে ছিল৷ এসব তথ্য থাকার পরও জাতিসংঘ কোনো প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা নেয়নি৷”

তিনি মনে করেন, মিয়ানমারের বিষয়টি যেহেতু আন্তর্জাতিক আদালতে গিয়েছে তাই জাতিগত নিধনের ঘটনায় যারা জড়িত, তাদের বিচারই যথেষ্ট নয়৷ জাতিগত নিধনের প্রস্তুতির বিষয়ে যারা জানার পরও ব্যবস্থা নেয়নি, তাদেরও জবাবদিহি করতে হবে৷ কারণ, জাতিসংঘের দায়িত্ব শুধু মানবিক সহায়তা করা নয়৷ বিভিন্ন দেশে সহিংসতা প্রতিরোধ করাও তাদের কাজ৷ জেনোসাইডের আগাম তথ্য থাকার পরও তারা তা প্রতিরোধে কাজ করেনি৷