সিলেটে কম দামের পেঁয়াজ নিয়ে কাড়াকাড়ি, একজন গুলিবিদ্ধসহ আহত ২

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: সিলেটে টিসিবির ট্রাক থেকে কম দামে পেঁয়াজ কিনতে যাওয়া মানুষের বিশৃঙ্খলা সামলাতে গিয়ে পুলিশের শটগানের গুলিতে চন্দ্রকান্ত সিংহ নামের এক পথচারী গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। এছাড়া ধাক্কাধাক্কির মধ্যে এক নারী ক্রেতা আহত হয়েছেন। প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে তিনি বাসায় ফিরেছেন।

আজ সোমবার দুপুর সোয়া ১টার দিকে নগরীর রিকাবিবাজারের কবি নজরুল অডিটোরিয়ামের সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে। গুলিবিদ্ধ চন্দ্রকান্ত সিংহকে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সকাল ১০টার পর থেকে ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) উদ্যোগে ৪৫ টাকা দরে রিকাবিবাজার পয়েন্টে পেঁয়াজ বিক্রি শুরু হয়। হঠাৎ ভিড়ের মধ্য থেকে ধাক্কাধাক্কি শুরু হলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশের পক্ষ থেকে লাইন সাজাতে গিয়ে অনাকাক্সিক্ষত এ ঘটনাটি ঘটে।

সিলেট কোতোয়ালি মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) রিতা আক্তার জানান, শৃঙ্খলা বজায় রাখার জন্য পুলিশ পাঁচজন করে ক্রেতাকে অডিটোরিয়ামের গেইট দিয়ে ভেতরে প্রবেশের সুযোগ দিচ্ছিল। এর মধ্যে পেছন থেকে ধাক্কাধাক্কি শুরু হলে পুলিশ বাধা দেয়। এ সময় লোড করা একটি শর্টগান থেকে অসাবধানতাবশত গুলি বের হয়ে যায়।

জানা যায়, গত শুক্রবার সিলেট শহরতলীর বটেশ্বর বাইপাস এলাকায় র‌্যাব-৯ পরিচালিত একটি অভিযানে এক ট্রাক পেঁয়াজ উদ্ধার করা হয়। পেঁয়াজগুলো ভারত থেকে সিলেটের তামাবিল বর্ডার হয়ে অবৈধভাবে বাংলাদেশে প্রবেশ করে। এ সময় আমদানির কাগজ দেখাতে না পারায় ট্রাক ও পেঁয়াজ জব্দসহ দুজনকে আটক করা হয়।

র‌্যাব-৯ এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (মিডিয়া) মো: মনিরুজ্জামান জানান, ৭ হাজার ২ শ’ কেজি পেঁয়াজ বাংলাদেশে নিয়ে আসে চোরাকারবারিরা। যার আনুমানিক মূল্য প্রায় সাড়ে ৯ লাখ টাকা। পরে এই পেঁয়াজগুলো প্রথমে নিলামে ওঠানোর কথা থাকলেও পরবর্তীতে টিসিবির মাধ্যমে খোলাবাজারে বিক্রি করার সিদ্ধান্ত হয়।

এ সিদ্ধান্তের আলোকে সোমবার সকাল ১০টা থেকে নগরের কবি নজরুল অডিটোরিয়াম এলাকা, কিন ব্রিজের মোড় ও বঙ্গবীর রোডের মার্কাস পয়েন্টে তিনটি ট্রাকের মাধ্যমে পেঁয়াজ বিক্রি শুরু হয়। নির্ধারিত সময়ের অনেক আগে থেকে লোকে লোকারণ্য হয়ে ওঠে পেঁয়াজ বিক্রির পয়েন্টগুলো। এসময়ে প্রায় এক কিলোমিটার দীর্ঘ লাইন পরিলক্ষিত হয়।

টিসিবি সিলেটের ইনচার্জ মো: ইসমাইল মজুমদার বলেন, সকাল থেকেই আমরা খোলাবাজারে পেঁয়াজ বিক্রি শুরু করেছি। আমাদের ডিলার সরকার নির্ধারিত মূল্যে নগরের তিনটি পয়েন্টে তিনটি ট্রাকের মাধ্যমে পেঁয়াজ বিক্রি করছে।

বিজ্ঞাপন