শিক্ষাঙ্গনে দাড়ি-টুপি, বোরকা-হিজাবের প্রতি ভীতি অসুস্থ মানসিকতার বহি:প্রকাশ

280

 ইসলাম টাইমস ডেস্ক : নিজ ধর্মচর্চা ও ধর্মীয় কৃষ্টির অনুসরণ, অনুশীলন মানুষের মৌলিক অধিকারের অন্তুর্ভুক্ত। দেশের প্রতিটি নাগরিকের সাংবিধানিক অধিকার।  দেশের প্রতিটি নাগরিককে সংবিধান এ অধিকার দিয়েছে যে সে নিজ ধর্ম ও ধর্মীয় আচার স্বাধীনভাবে পালন করতে পারবে। এক্ষেত্রে রাষ্ট্র কিংবা রাষ্ট্রের অন্যকোনো নাগরিক তাকে বাধা দিতে পারবে না। কিন্তু বাংলাদেশসহ গোটা বিশ্বে আজ এই মৌলিক মানবাধিকারটি লংঘিত হচ্ছে। এ মানবাধিকারের বিষয়ে সচেতন হওয়ার জন্যে নিজ ফেইসবুক পেজে ছোট্ট একটি পোস্ট করেছেন বিশিষ্ট কলামিস্ট, প্রবীণ আলেম মাওলানা আ ফ ম খালেদ হোসেন। তার লেখাটি তুলে দেওয়া হল।

“কলেজ-ভার্সিটির ক্যাম্পাসে দাড়ি রাখলে, পাঞ্জাবি-টুপি পরিধান করলে, নামায পড়লে অনেক সময় (সব সময় নয়) বিশেষ কোন দলের তকমা লাগানো হয়। কোনঠাসা করে রাখা হয়। কখনো কখনো নিপীড়ন চালানো হয়। ভীতির কারণে অনেকে দাড়ি ফেলে দেয় এবং নামায ছেড়ে দেয়। কিছু কিছু প্রতিষ্ঠানে মেয়ে শিক্ষার্থীদের বোরকা পরিধান বা হিজাব ব্যব্যহারকে নিরুৎসাহিত করা হয়। এ অসুস্থ মানসিকতার পরিবর্তন ঘটাতে হবে। আসুন সোচ্চার হই। ধর্মচর্চা ও ধর্মীয় কৃষ্টির অনুশীলন জনগণের সাংবিধানিক অধিকার। এ অধিকার লালন ও সমুন্নত রাখা রাষ্ট্রযন্ত্রের দায়িত্ব।”