ইসলাম টাইমসের বছরপূর্তি ও ইসলামি গণমাধ্যম

127

মুকিম বিন জুবাইর ।।

আলহামদুলিল্লাহ, আমাদের স্বপ্নের ইসলাম টাইমস পোর্টালটি তার প্রথম বছর পূর্ণ করতে যাচ্ছে। সংবাদমাধ্যম যখন একটি জাতির মুখপত্র তখন আমাদের, আমাদের ঘরানার কোনো বিশ্বস্ত মুখপত্র ছিল না। যা কিছু ছিল তা গণমাধ্যম হয়ে উঠতে পারেনি। দলগত আদর্শ আর চিন্তার প্রচারে খুব দ্রুতই অঙ্কুরেই দলমাধ্যমে পরিণত হতে থাকায় আমরা সামগ্রিকভাবে আলেম সমাজ ইসলামি গণমাধ্যমের সুফল থেকে বঞ্চিত হয়ে আসছিলাম।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এখন ত্বরিৎ সংবাদ প্রচারের অন্যতম একটি মাধ্যম । ম্যাস মিডিয়া বা গণমাধ্যমের অন্যতম একটি প্লাটফর্ম। শতশত  নিউজ পোর্টাল এবং পৃথিবী-বিখ্যাত অনেক মিডিয়া, প্রিন্ট মিডিয়া  সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও সক্রিয় হয়েছে । মুখরোচক ও অর্থহীন শিরোনামে প্রতিষ্ঠিত মিডিয়াগুলোও যখন লাইক ও ভিউয়ার বাড়িয়ে নিচ্ছে তখন সত্যনিষ্ঠ ও তথ্যমূলক সংবাদ পরিবেশন করে একটা স্বাস্হ্যসম্মত লাইক-কমেন্টের ফিগার নিয়ে দাঁড়ানোটা অনেক পরিশ্রম ও প্রচারণার বিষয়। তবু সবার সহেযোগিতায়  ‘ইসলাম টাইমস’ ইসলামী গণমাধ্যম হয়ে শুধু টিকেই থাকবে না, গণমাধ্যমে তাকে রাজত্ব করবতে হবে, করতেই হবে বলে আমরা আশাবাদী।

আমাদের বিকল্প কোনো পথ ও পদ্ধতি নেই। যদি থাকতো তাহলে স্বাধীনতার অর্ধশত বছরে অর্ধশত না হলেও অন্তত অর্ধ ডজন ইসলামী গণমাধ্যম দাঁড়িয়ে যেত। অনেক দেরিতে হলেও আমাদের অনেকেই শুরু করেছেন।  অনলাইন রেডিও , অনলাইন টিভি , সংবাদপত্র, নিউজ পোর্টাল খুলেছেন।

গণমাধ্যম এখন একটা জাতির সাধারণ মানুষের বিবেক । শুরুর দিকে গণমাধ্যম হয়তো ছিল রাজা-বাদশাহ বা সরকার ও উঁচু পর্যায়ের মানুষের মুখপত্র।  তবে সময়ের পরিবর্তনে তা এখন রাষ্ট্রযন্ত্রের পথপ্রদর্শক। বিশ্বের আণবিক শক্তিধারীরা রাসায়নিক শক্তির পাশাপাশি কলম ও প্রেসের শক্তি বাড়িয়েছে। সুপার পাওয়ার প্রায় সবদেশগুলোরই শক্তিশালী গণমাধ্যম রয়েছে।  অনিচ্ছা আর অনীহা সত্ত্বেও আমাদের বেশিরভাগ তথ্য ও ছবি সংগৃহীত হয় সেইসব গণমাধ্যম থেকে । গুটিকয়েক মুসলিমদেশেও বিশ্বব্যাপী সম্প্রচারিত বিশ্বমানের গণমাধ্যম রয়েছে। প্রশ্ন হচ্ছে,  সেগুলো কতটা ইসলামী?  ইসলামী সমাজ ব্যবস্হা প্রতিষ্ঠা করতে হলে ইসলামী আদর্শ সামনে নিয়ে জনমত তৈরি করতে হবে।

ইসলামী জনমত তৈরিতে ইসলামী গণমাধ্যমের বিকল্প নেই। বিশ্বব্যাপী ইসলামোফোবিয়া ছড়িয়ে পড়ার ও ছড়িয়ে দেয়ার প্রধান হাতিয়ার হলো গণমাধ্যম। ইসলামভীতি দূর করারও সহজ মাধ্যম হচ্ছে ইসলামী গণমাধ্যম। সেটা হতে পারে ইউটিউব চ্যানেল, ওয়েবভিত্তিক নিউজপোর্টাল, সংবাদপত্র বা টেলিভিশন স্টেশন ও পডকাস্টিং। এ পথে দিনদিন আমাদের গণমাধ্যমকর্মী ও সেবকদের চেষ্টা বাড়িয়ে যেতে হবে।

লেখক: ইসলাম টাইমস মালয়েশিয়া প্রতিনিধি

মুদির, মাহাদ তাহফিজ ওয়াদি ফাহাম , সেলাংগর