“আমাদের আকাবির বুযুর্গরাও ব্যবসা করেছেন”

299

ইসলাম টাইমস প্রতিবেদন : দারুল উলুম দেওবন্দের মুহাদ্দিস, জমিয়তে উলামা হিন্দের সদর মাওলানা সাইয়্যেদ আরশাদ মাদানী বলেছেন, ব্যবসা অনেক বড় ভাল কাজ। আমাদের আকাবির ব্যবসা করেছেন। ইমাম আবু হানিফা রহ.ও ব্যবসা করতেন। বিশেষত আমাদের উলামায়ে কেরামের উচিত, নিজেদের অর্থনৈতিক অবস্থান মজবুত করার জন্যে এবং নিজেদের ইজ্জত–সম্মান বাড়ানোর জন্যে ব্যবসার সাথে সম্পৃক্ত হওয়া। ব্যবসার মাধ্যমে আল্লাহ রিযকের দরজা খুলে দেন। ব্যবসার মাধ্যমে আল্লাহ জীবিকায় বরকত দান করেন।

গতকাল (৯সেপ্টেম্বর) দেওবন্দের মাদানি মার্কেটে একটি কিতাবের দোকানের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন।

মাওলানা মাদানি আরও বলেন, “ব্যবসার মাধ্যমে আমাদের আমানতদারি ও বিশ্বস্ততা মানুষের সামনে প্রকাশ পায়। আমাদের আখলাক এবং আমাদের ইমানদারি ব্যবসার আয় উন্নতির অনেক বড় কারণ হয়ে যায়। বিশ্বস্ত ব্যবসায়ীর ঠিকানা হবে জান্নাত। তার হাশর হবে শহীদ ও সিদ্দীকদের সাথে।

“হাদীস শরীফে এসেছে, «التاجر الأمين الصادق مع الصديقين والشهداء» সত্যবাদী ব্যবসায়ীর হাশর হবে সিদ্দীক ও শহীদদের সাথে।

“ব্যবসায় ধোঁকাবাজি করার লোক অনেক। কিন্তু এ সত্ত্বেও যে ব্যবসায়ী ধোঁকা দিবে না, বিশ্বস্ততার পরিচয় দিবে, তাহলে এটা মানুষের জন্যে আল্লাহর ভয় ও অন্তরের পবিত্রতার কারণ হয়ে যায়। এতে মানুষের মাঝে নেকনাম হয়। সুখ্যাতি তৈরি হয়। গ্রহণযোগ্যতা তৈরি হয়। আর সুনাম-সুখ্যাতি ও গ্রহণযোগ্যতা আল্লাহর দেওয়া এক অমূল্য নেয়ামত। এটা টাকা পয়সা দিয়ে কিনতে পাওয়া যায় না।

সভা শেষে আরশাদ মাদানি দোকানে কল্যাণ ও বরকতের দোয়া করেন।

সভায় উপস্থিত ছিলেন দারুল উলুম দেওবন্দের মুহাদ্দিস ক্বারি উসমান সাহেব মনসুরপুরী, দেওবন্দের নায়েবে মুহতামিম হযরত মাওলানা আব্দুল খালেক সাম্ভলী, দেওবন্দের শিক্ষাসচিব, মুফতি খুরশিদ গিয়াবী প্রমুখ।

সূত্র: জরবে দেওবন্দ