এবার মালয়েশিয়ার সব প্রদেশেই নিষিদ্ধ করা হল জাকির নায়েকের বক্তব্য

803

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: সাত প্রদেশের পর এবার মালয়েশিয়ার সব প্রদেশেই নিষিদ্ধ করা হল ডা. জাকির নায়েকের বক্তব্য। জাতীয় নিরাপত্তার স্বার্থেই এমন পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে মালয়েশিয়ার পুলিশ।

এর আগে মালয়েশিয়ার সাত প্রদেশে তার বক্তৃতা দেয়ায় নিষেধাজ্ঞা আনা হয়েছে। প্রদেশগুলো হলো- জোহর, সেলাংগর, পেনাং, কেদাহ, পেরলিস, সারাওয়াক এবং মেলাকা।

অভিযোগ উঠেছে, সাম্প্রতিক সময়ে এক অনুষ্ঠানে বক্তৃতায় মালয়েশিয়ায় বসবাসরত ভারতীয় হিন্দু এবং চীনাদের নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করেন জাকির নায়েক।

এদিকে ভারতের আদালতে ‘অর্থপাচার ও ধর্মীয় বিদ্বেষ ছড়ানো’র অভিযোগ উঠানো হয়েছে ডা. জাকিরের বিরুদ্ধে। দিল্লির পক্ষ থেকে তাকে ফেরত পাঠানোর আনুষ্ঠানিক আবেদন করা হলে ২০১৮ সালে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ এ ব্যাপারে অনিচ্ছা প্রকাশ করেছেন। তবে সম্প্রতি জাকির নায়েকের বক্তব্যের বিরুদ্ধে বর্ণবাদের অভিযোগ তুলেছেন মালয়েশিয়ার সংখ্যালঘু কয়েকজন মন্ত্রী। এ ঘটনায় তদন্ত করছে মালয় পুলিশে।

রবিবার মেলাকা প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী আদিলি বলেছিলেন, বিভিন্ন ধর্ম ও বর্ণের মানুষের মধ্যে সম্প্রীতি নষ্ট হয় এমন যেকোনও কিছু এড়াতে চান তারা। তিনি বলেন, আমরা সম্প্রীতি বজায় রাখতে চাই। তাই জাকির নায়েককে কোনও বক্তব্যের অনুমতি দেওয়া হয়নি এ রাজ্যে।

পেনাংয়ের উপমুখ্যমন্ত্রী দাতুক আহমাদ জাকিউদ্দিন আব্দুল রাহমান বলেন, তারা জন সমাবেশে বক্তৃতার জন্য জাকির নায়েককে স্বাগত জানাবেন না। আর এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে আরও ছয় মাস আগে। তিনি বলেন, ‘জাকির যখন আমাদের সঙ্গে দেখা করেন তখন বেশ কিছু বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছিলো। তার মধ্যে ছিলো পেনাংয়ে জনসমাবেশে বক্তব্য দেওয়া। কিন্তু আমরা তাকে বক্তব্য দিতে মানা করে দিই।

সেলানগর ইসলামিক পরিষদের চেয়ারম্যান দাতুক মোহাম্মদ খুশরিস মুনাউই বলেন, জাকির নায়েককে নিয়ে সাম্প্রতিক সমালোচনার প্রেক্ষিতেই তার বক্তব্য বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, আমাদের মনে হয় সাম্প্রতিক পরিস্থিতিতে তাকে বক্তব্য দেওয়ার সুযোগ না দেওয়াই উত্তম।