ল্যান্ড ফোনের মাসিক লাইন রেন্ট বিলুপ্ত, মানুষকে টিঅ্যান্ডটিমুখী করার নতুন উদ্যোগ

129

ইসলাম টাইমস ডেস্ক:  আজ থেকে বাতিল হচ্ছে ল্যান্ড ফোনের মাসিক লাইন রেন্ট। এখন থেকে মাসিক মাত্র ১৫০ টাকায় বিটিসিএল থেকে বিটিসিএলে যত খুশি মিনিট কল করা যাবে। এ ছাড়াও বিটিসিএল থেকে অন্য যেকোনো অপারেটরে মাত্র ৫২ পয়সা মিনিট কলচার্জ নির্ধারণ করা হয়েছে। বিটিসিএল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, টেলিফোন সেবা আরো জনবান্ধব ও সময়োপযোগী করার লক্ষ্যেই এসব সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

গত ৭ই আগস্ট ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বারের  সভাপতিত্বে মন্ত্রণালয়ে তার দপ্তরে এক বৈঠকে এসব সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এছাড়া গ্রাহকদের ঘরে বসেই বিকাশ কিংবা রকেটের মাধ্যমে বিল পরিশোধের ব্যবস্থাও রয়েছে। পাশাপাশি বিটিসিএল’র এডিএসএল ও জিপিওএন ইন্টারনেট মূল্য ব্যাপক হ্রাস করা হয়েছে।

এছাড়া মোবাইল ফোন সঙ্গে রাখা যায়। ফলে টিঅ্যান্ডটি ফোন থেকে মানুষ ধীরে ধীরে মুখ ফিরিয়ে নিতে থাকে। একপর্যায়ে ডিমান্ড নোটের টাকার পরিমাণ একেবারে কমিয়ে আনা হয়। তারপরও মানুষ টিঅ্যান্ডটিমুখী হচ্ছে না। এ অবস্থায় বিটিসিএলকে ফের মানুষের কাছে গ্রহণযোগ্য করে তুলতে নেয়া হয় নানা সিদ্ধান্ত। বর্তমানে ল্যান্ড ফোনে কথা বলা হোক আর না হোক মাসিক ১৬১ টাকা লাইনরেন্ট ও ভ্যাট ২৪ টাকা দিতে হতো গ্রাহকদের। আজ থেকে এ লাইনরেন্ট উঠে যাচ্ছে। ফলে গ্রাহকরা ল্যান্ড ফোনের প্রতি আকৃষ্ট হবে বলে আশা করছেন বিটিসিএল কর্তৃপক্ষ।

 

এ ব্যাপারে ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বিটিসিএলকে জনবান্ধব এবং লাভজনক প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তুলতে সংশ্লিষ্টদের আরও আন্তরিকতা, নিষ্ঠা এবং সর্বোচ্চ সেবার মানসিকতা নিয়ে কাজ করার আহ্বান জানান। সর্বোচ্চ গ্রাহক সেবা নিশ্চিত করার মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানটিকে জনবান্ধব সেবা প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তুলতে সম্ভাব্য সবকিছু করার কথাও জানানা মন্ত্রী।

এছাড়াও গ্রাহক সেবা নিশ্চিত করতে বিদ্যমান জনবলকে আধুনিক প্রযুক্তি উপযোগী করে তৈরি, বিডি ডোমেইন নিবন্ধন ফি ও টেলিফোন সংযোগের ডিমান্ড নোট পদ্ধতি পরিবর্তন, গ্রাহক সেবা অটোমেশন করে বিটিসিএলকে জনবান্ধব ও লাভজনক প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তুলতে কর্মসূচি হাতে নেয়া হয়েছে। যার বাস্তবায়নও ইতিমধ্যে শুরু হয়েছে। অটোমেশন পদ্ধতিতে ঘরে বসেই যাতে গ্রাহকগণ সেবা পেতে পারেন এ বিষয়েও কাজ শুরু হয়েছে।