নেসাব ও পরীক্ষা নিয়ে বেফাকের মজলিসে শুরার বৈঠকে আজ যা আলোচনা হলো

1434

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: বাংলাদেশের কওমি মাদরাসার প্রচলিত নেসাবে তালিমকে ১৬ বছরে উন্নীত করে যুগোপযোগী ও মানসম্মত করার পরিকল্পনা নিয়ে ফরিদাবাদ মাদরাসায় বৈঠক করেছেন বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়ার মজলিসে শুরার সদস্যবৃন্দ। বৈঠকে বেফাকের পরবর্তী পরীক্ষার জন্য মারকায ( কেন্দ্র) কমিয়ে আনা, বিশ্বস্ত নেগরান নিয়োগ ও দক্ষ মুমতাহিনের মাধ্যমে খাতা দেখানোর বিষয়েও আলোচনা হয়।

আজ শনিবার বেফাকের চেয়ারম্যান আল্লামা আহমদ শফীর সভাপতিত্বে সকাল ১০ টায় রাজধানীর ফরিদাবাদ মাদরাসায় এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

এসময় বৈঠকে আরও উপস্থিত ছিলেন, আল্লামা জুনাইদ বাবুনগরী, আল্লামা আশরাফ আলী, আল্লামা আযহার আলী আনোয়ার শাহ, আল্লামা নূর হুসাইন কাসেমী, মাওলানা আবদুল কুদ্দুস, মাওলানা আবদুর রব ইউসুফী, মুফতি ওয়াক্কাস, সৈয়দ রেজাউল করিম প্রমুখ।

বৈঠকে উপস্থিত বেফাকের সহ-সভাপতি মাওলানা বাহাউদ্দীন যাকারিয়া ইসলাম টাইমসকে এসব তথ্য জানান।

তিনি বলেন, কাফিয়া, শরহেজামী জামাতকে পৃথক করা, কাফিয়া জামাতে পরীক্ষা নেওয়া এবং জালালাইন ও মেশকাতের মাঝে নতুন কোনো জামাত খোলার ব্যাপারে বৈঠকে প্রস্তাব করা হয়। তবে আজকের বৈঠকে কোনো সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়নি। মজলিসে শুরার পরবর্তী বৈঠকে এ প্রস্তাবের উপর মত বিনিময়ের মাধ্যমে সিদ্ধান্ত গৃহীত হবে।

মাওলানা বাহাউদ্দীন যাকারিয়া আরও জানান, গত বছরের মেশকাত জামাতের পরীক্ষার প্রশ্নফাঁস হলে পরীক্ষা পদ্ধতি সাময়িক চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছিল। বেফাকের দায়িত্বশীলগণ তাৎক্ষণিক যদিও সে চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে পেরেছিলেন তবে দীর্ঘমেয়াদী কী ব্যবস্থা গ্রহণ করা যায় সে ব্যাপারেও আজকের বৈঠকে আলোচনা হয়। এ প্রসঙ্গে পরবর্তী পরীক্ষার জন্য মারকায ( কেন্দ্র) কমিয়ে আনা, বিশ্বস্ত নেগরান নিয়োগ ও দক্ষ মুমতাহিনের মাধ্যমে খাতা দেখানোর বিষয়েও আলোচনা হয়।