শতোর্ধ বয়সী মাওলানা জালালুদ্দীন জালালী : বহু আকাবিরের স্নেহধন্য কালের সাক্ষী

1115

এনাম হাসান জুনাইদ  ।।

পাকিস্তানের মতিয়ারি জেলার ১২০ বয়সী প্রবীণ আলেম মাওলানা জালালুদ্দীন এখনও দিনরাত কুরআনের খেদমতে নিয়োজিত রয়েছেন।  শেরখান জামালী নামের ছোট্ট্ গ্রামটিতে মাওলানা জালালুদ্দীনকে কেন্দ্র করে বিভিন্ন অঞ্চল থেকে দিনরাত মানুষের আনাগোনা হতেই থাকে।

মাওলানা জালালু্দ্দীন বৃটিশবিরোধী আন্দোলনের প্রখ্যাত মুজাহিদ ও আলেম মাওলানা উবায়দুল্লাহ সিন্ধির শাগরিদ। হযরত হাকীমুল উম্মত মাওলানা আশরাফ আলী থানভী রহ.- এর সাথেও সাক্ষাত লাভে ধন্য হয়েছেন মাওলানা জালালুদ্দীন।

মাওলানা জালালুদ্দীনের ছেলেও, যিনি বয়সে সত্তরোর্ধ, প্রসিদ্ধ আলেম এবং দ্বীনী খেদমতে নিয়োজিত।

এ সুদীর্ঘ জীবনে  মাওলানা জালালুদ্দীন ৩৩ বার হজ  করেছেন ও ৪৩ বার উমরাহ করেছেন ।

উর্দু-আরবি- ফার্সি –সিন্ধি ভাষায় রয়েছে মাওলানা জালালুদ্দীনের অগাধ পান্ডিত্য। আজও তিনি পবিত্র কুরআনের তরজমা ও তাফসীরের দরস দেন। দূরদূরান্ত থেকে মানুষ ছুটে আসে তার দরসে শরীক হওয়ার জন্যে। মানুষ তার কথা মন দিয়ে শোনে এবং উপকৃত হয়।

১২০ বছরের এই বার্ধক্যেও কুরআন পড়তে তার চশমা দরকার হয় না। এবং তার বড় ধরনের  কোন রোগও নেই।

মাওলানা জালালুদ্দীন কিতাব রচনার কাজও করেছেন। এই পর্যন্ত তার চারটি কিতাব লেখা হয়েছে। এখন তাফসীরের উপর  লেখার কাজ চলছে ।

আল্লাহ মাওলানা জালালুদ্দীনকে সুস্বাস্থ্যের সাথে নেক হায়াত দান করুন । আমীন।