লাইভ প্রোগ্রাম: ফের বিজেপির ক্ষমতা গ্রহণ, মুসলমানদের আতঙ্ক ও নানা দিক বিশ্লেষণ

167

ইসলাম টাইমস প্রতিবেদন: ভারতের ১৭তম লোকসভা নির্বাচনে ফের বিজেপির ক্ষমতায় আসা, বাংলাদরশের উপর এর প্রভাব এবং ভারতের রাজনীতিতে উগ্রতা, মুসলিম জীবন ও অন্যান্য প্রসঙ্গে গতরাতে ইসলাম টাইমস-এর পক্ষ থেকে লাইভ প্রোগ্রামের আয়োজন করা হয়।

গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ১০ টা ৪০ মিনিটে শুরু হওয়া লাইভ প্রোগ্রামে আলোচনা করেন ইসলাম টাইমস-এর সম্পাদক মাওলানা শরীফ মুহাম্মদ।

ইসলাম টাইমস-এর লাইভ প্রোগ্রামে বলা হয়, ভারতে দ্বিতীয়বারের মতো আরএসএস, বিশ্ব হিন্দু পরিষদ, বজরংদলের মতো হিন্দুত্ববাদী, ভিন্ন ধর্মের প্রতি আগ্রাসী দলের সাথে জোট করে কট্টর হিন্দু-জাতীয়তাবাদী দল বিজেপির ফের ক্ষমতায় আসা ভারতের বিশ কোটি মুসলমানসহ পার্শ্ববর্তী রাষ্ট্রগুলোর জন্য হুমকি স্বরূপ। ইউরোপ বা উত্তর আমেরিকার দেশগুলোতে যেমন হোয়াইট সুপ্রিমেসি বা বর্ণবাদ ও খ্রিস্টান আধিপত্যবাদের চর্চা হতে দেখা যায় বিজেপিও তেমনি উপমহাদেশে হিন্দু আধিপত্যবাদ কায়েম করতে চায়। তারা মনে করে ভারতে ভূমির মালিক কেবল হিন্দুই হতে পারে।

তিস্তা ও  পদ্মার পানি সমস্যা ছাড়াও সীমান্তে বিএসএফের অরাজকতাসহ অন্য অনেক সমস্যা থাকা সত্ত্বেও বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর এবং অন্যান্য দেশের রাষ্ট্রপ্রধানদের মোদির বিজয়ে অভিনন্দন জানানোকে সাধারণ ডিপ্লোম্যাটিক ঘটনা উল্লেখ করে লাইভ প্রোগ্রামে বলা হয়, পশ্চিমবঙ্গ,  ত্রিপুরা,  বিহার, আসামসহ ভারতের সর্বত্রই মুসলমানদের উপর গত পাঁচবছরে যে নির্যাতন করা হয়েছে,  গরুকে কেন্দ্র করে নৃশংসভাবে যে অসংখ্য মুসলমানকে হত্যা করা হয়েছে সর্বোপরি বাংলাদেশসহ পার্শ্ববর্তী রাষ্ট্রগুলোর প্রতি বিজেপি সরকারের যে আগ্রাসী মনোভাব তা সত্ত্বেও ভারতের জনগণ কীভাবে ভোট দিয়ে মোদির বিজেপিকে জয়ী করল সেটা চিন্তা ও পরিতাপের বিষয়।

বাঙ্গালী ও মুসলমানদের নিয়ে বিজেপি প্রধান অমিত শাহ-এর উঁইপোকা বলে কটূক্তি করা, বঙ্গোপসাগরে ছুঁড়ে ফেলে দেওয়ার হুমকি ছাড়াও নির্বাচনী প্রচারণায় বাংলাদেশিদের নিয়ে বিজেপির অন্যান্য নেতাদের অপমানকর বক্তব্যগুলোর ভয়াবহতা অনুধাবন করে দেশবাসীর প্রতি সতর্ক ও সচেতনতার আহ্বান করা হয় গতকালের লাইভ প্রোগ্রামে।

গুজরাট দাঙ্গায় জড়িত থাকার অভিযোগে বিভিন্ন রাষ্ট্রে একসময় নিষিদ্ধ ঘোষিত হওয়া ভারতের বর্তমান বিজিত প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিজেপি সরকার যেন দক্ষিণ এশিয়ায়  হিন্দু সন্ত্রাসবাদকে আড়াল করতে মুসলমান বা অন্য ধর্মাবলম্বীদের নিয়ে যেন ব্লেইম গেমের সুযোগ না পায় সেজন্য লাইভ প্রোগ্রামে ভারতবাসীসহ অন্যদেরকেউ সচেতন থাকার কথা বলেন মাওলানা শরীফ মুহাম্মদ।

ইসলাম টাইমস-এর লাইভ প্রোগ্রামে ভারতবাসীর প্রতি আহ্বান করা হয়, তারা যেন হিন্দু সন্ত্রাসবাদের ফাঁদে পড়ে ভারতের বহুজাতিক সম্প্রীতিকে নষ্ট না করে সর্বত্র শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখার ব্যাপারে তৎপর হয়।