শ্রীলঙ্কায় আতঙ্কে মুসলমানরা

75

ইসলাম টাইমস ডেস্ক: শ্রীলঙ্কায় গত রোববার গির্জা ও বিলাসবহুল হোটেলসহ আটটি স্থানে হামলার সময় ঘর থেকে বেরিয়েছিলেন মোহামেদ হাসান। এখন তিনি হামলার ভয়ে আছেন। কারণ তিনি মুসলমান।

একটি প্রিন্টিং প্রেসে কাজ করেন হাসান। রাজধানী কলম্বোর দেমাতাগোদা এলাকার জুমা মসজিদের পাশে কথা হয় তাঁর সঙ্গে। ৪১ বছর বয়সী এই ব্যক্তিকে বাইরে না যাওয়ার জন্য অনুরোধ করছে তাঁর পরিবার। হাসান বলেন, ‘তারা ভয় পাচ্ছে, যদি আমি বাইরে যাই তাহলে কি আর জীবিত ফিরতে পারব?’

এমন একজন মুসলিম নারী জরিনা বেগম (৬০)। তিনি বলেন, ওই হামলার পর থেকে এখনো তিনি ঠিকঠাক ঘুমাতে পারেননি। জরিনা আরও বলেন, ‘আমি জানি মানুষ মুসলমানদের ওপর ক্ষিপ্ত। যাঁরা ঘৃণা করেন, তাঁরা এখন আরও বেশি ঘৃণা করবেন।’ তিনি বলেন, ‘আমরা আমাদের বাড়িতে গাদাগাদি করে থাকছি। আমরা বাইরে যেতে ভয় পাচ্ছি।’

শ্রীলঙ্কার মোট জনসংখ্যা ১০ শতাংশ মুসলমান এবং ৭ শতাংশ খ্রিষ্টান। দেশটিতে সংখ্যাগরিষ্ঠ সিংহলিরা বৌদ্ধ। আর দ্বিতীয় সংখ্যাগরিষ্ঠ হলো হিন্দু সম্প্রদায়। দেশটির ধর্মীয় এবং জাতিসত্তার মানুষদের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। কট্টরপন্থী বৌদ্ধরা ২০১৩ সালে এবং ২০১৮ সালে মুসমানদের বিভিন্ন ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান ও বাড়িঘরে হামলা চালিয়েছিল। যদিও রোববার এই হামলার পর দেশটির প্রেসিডেন্ট মাইথ্রিপালা সিরিসেনা সাধারণ মানুষকে শান্ত থাকার আহ্বান জানিয়েছিলেন। তবে জুমা মসজিদের ওই এলাকায় গিয়ে দেখে গেল, সেখানকার মুসলমানরা আতঙ্কের মধ্যে রয়েছেন। তাঁরা আশা করছেন, এ রকম সংকটময় সময় পুলিশ তাঁদের রক্ষা করবে।